মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
ইউনিয়ন ভূমি অফিস

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

০১ নং চরামদ্দি , বাকেরগঞ্জ, বরিশাল

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

ক) মিউটেশন/নামজারীঃ
মিউটেশন/নামজারীর আবেদনের সাথে নিম্নবর্ণিত কাগজপত্র দাখিলকরতেহয়ঃ-
      (১) ক্রয়ক্ষেত্রেঃ- ক্রয় ও প্রয়োজনীয়বায়াদলিলেরকপি।
      (২) মৃত্যুরক্ষেত্রেঃ- ওয়ারিশসনদপত্র।
      (৩) হেবাদলিলের ক্ষেত্রেঃ- হেবাদলিলেরকপি।
           এবং সকল রেকর্ডীয় পর্চা/খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি।

কতদিনে মিউটেশনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবেঃ
মালিকানা বিষয়ে কোন বিতর্ক না থাকলে আবেদন প্রাপ্তির তারিখ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ (পয়তাল্লিশ) দিনের মধ্যে কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। মিউটেশনের জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর দরখাস্ত দাখিল করতে হয়।

(খ) পর্চা/খতিয়ানের সইমোহর নকল সরবরাহঃ
দরখাস্ত দাখিল করতে হবে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কার্যালয়ের মহাফেজ খানা শাখা (রেকর্ড রুম)।

(গ) অকৃষি খাস জমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
১।সরকারি অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য ৫/- টাকার কোর্ট ফি দিয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন। আবেদন পত্রের সহিত প্রার্থীত জমি যে উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য বন্দোবস্ত চাওয়া হয়েছে তা ব্যতিরেকে অন্য কোন উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হবে না মর্মে অঙ্গিকারনামা (এফিডেভিট) দাখিল করতে হবে।
২। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আবেদন পত্রখানা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।
৩।সরেজমিনে পরিমাপ,তদন্ত ও নীতিমালায় উল্লেখিত শর্ত সাপেক্ষে প্রার্থীত ভূমি বন্দোবস্ত প্রদানের যোগ্য হলে কেস নথি সৃজন পূর্বক জমির মূল্য নির্ধারণ করে স্কেস ম্যাপ,রেন্ট রোল ইত্যাদির সমন্বয়েএকটি প্রস্তাব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করার পর তা যথাযথ কি-না পরীক্ষান্তে প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়।

(ঘ) কৃষি খাসজমি স্থায়ী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
যে কোন ভূমিহীন পরিবার সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট নির্ধারিত ফরমে দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন।
আবেদনপত্রের সহিত যা জমা দিতে হবেঃ
১। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার/চেয়ারম্যানকর্তৃক সত্যায়িত ০২ কপি ফটো।
২। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট।

ইউনিয়ন খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটি প্রাপ্ত আবেদনপত্রসমূহ যাচাই-বাছাইপূর্বক প্রকৃত ভূমিহীন পরিবারের তালিকা প্রস্তুত ও জমি বরাদ্দের পরিমাণ নির্ধারণ করবেন। এর ২১ দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার(ভূমি) বন্দোবস্ত কেস রেকর্ড সৃজন পূর্বক উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট প্রেরণ করবেন।উক্ত কেস রেকর্ড পরবর্তী ২১ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হবে।
জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে অনুমোদিত প্রস্তাব ফেরৎ পাওয়ার পরে ১/-টাকা সেলামীর বিনিময়ে বন্দোবস্ত প্রাপকের অনুকুলে কবুলিয়ত সম্পাদন, খতিয়ান খোলা ও বন্দোবস্তকৃত জমির দখল বুঝিয়ে দেয়া হবে।

ক) মিউটেশন/নামজারীঃ
মিউটেশন/নামজারীর আবেদনের সাথে নিম্নবর্ণিত কাগজপত্র দাখিলকরতেহয়ঃ-
      (১) ক্রয়ক্ষেত্রেঃ- ক্রয় ও প্রয়োজনীয়বায়াদলিলেরকপি।
      (২) মৃত্যুরক্ষেত্রেঃ- ওয়ারিশসনদপত্র।
      (৩) হেবাদলিলের ক্ষেত্রেঃ- হেবাদলিলেরকপি।
           এবং সকল রেকর্ডীয় পর্চা/খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি।

কতদিনে মিউটেশনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবেঃ
মালিকানা বিষয়ে কোন বিতর্ক না থাকলে আবেদন প্রাপ্তির তারিখ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ (পয়তাল্লিশ) দিনের মধ্যে কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। মিউটেশনের জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর দরখাস্ত দাখিল করতে হয়।

(খ) পর্চা/খতিয়ানের সইমোহর নকল সরবরাহঃ
দরখাস্ত দাখিল করতে হবে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কার্যালয়ের মহাফেজ খানা শাখা (রেকর্ড রুম)।

(গ) অকৃষি খাস জমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
১।সরকারি অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য ৫/- টাকার কোর্ট ফি দিয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন। আবেদন পত্রের সহিত প্রার্থীত জমি যে উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য বন্দোবস্ত চাওয়া হয়েছে তা ব্যতিরেকে অন্য কোন উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হবে না মর্মে অঙ্গিকারনামা (এফিডেভিট) দাখিল করতে হবে।
২। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আবেদন পত্রখানা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।
৩।সরেজমিনে পরিমাপ,তদন্ত ও নীতিমালায় উল্লেখিত শর্ত সাপেক্ষে প্রার্থীত ভূমি বন্দোবস্ত প্রদানের যোগ্য হলে কেস নথি সৃজন পূর্বক জমির মূল্য নির্ধারণ করে স্কেস ম্যাপ,রেন্ট রোল ইত্যাদির সমন্বয়েএকটি প্রস্তাব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করার পর তা যথাযথ কি-না পরীক্ষান্তে প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়।

(ঘ) কৃষি খাসজমি স্থায়ী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
যে কোন ভূমিহীন পরিবার সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট নির্ধারিত ফরমে দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন।
আবেদনপত্রের সহিত যা জমা দিতে হবেঃ
১। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার/চেয়ারম্যানকর্তৃক সত্যায়িত ০২ কপি ফটো।
২। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট।

ইউনিয়ন খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটি প্রাপ্ত আবেদনপত্রসমূহ যাচাই-বাছাইপূর্বক প্রকৃত ভূমিহীন পরিবারের তালিকা প্রস্তুত ও জমি বরাদ্দের পরিমাণ নির্ধারণ করবেন। এর ২১ দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার(ভূমি) বন্দোবস্ত কেস রেকর্ড সৃজন পূর্বক উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট প্রেরণ করবেন।উক্ত কেস রেকর্ড পরবর্তী ২১ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হবে।
জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে অনুমোদিত প্রস্তাব ফেরৎ পাওয়ার পরে ১/-টাকা সেলামীর বিনিময়ে বন্দোবস্ত প্রাপকের অনুকুলে কবুলিয়ত সম্পাদন, খতিয়ান খোলা ও বন্দোবস্তকৃত জমির দখল বুঝিয়ে দেয়া হবে।

ক) মিউটেশন/নামজারীঃ
মিউটেশন/নামজারীর আবেদনের সাথে নিম্নবর্ণিত কাগজপত্র দাখিলকরতেহয়ঃ-
      (১) ক্রয়ক্ষেত্রেঃ- ক্রয় ও প্রয়োজনীয়বায়াদলিলেরকপি।
      (২) মৃত্যুরক্ষেত্রেঃ- ওয়ারিশসনদপত্র।
      (৩) হেবাদলিলের ক্ষেত্রেঃ- হেবাদলিলেরকপি।
           এবং সকল রেকর্ডীয় পর্চা/খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি।

কতদিনে মিউটেশনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবেঃ
মালিকানা বিষয়ে কোন বিতর্ক না থাকলে আবেদন প্রাপ্তির তারিখ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ (পয়তাল্লিশ) দিনের মধ্যে কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। মিউটেশনের জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর দরখাস্ত দাখিল করতে হয়।

(খ) পর্চা/খতিয়ানের সইমোহর নকল সরবরাহঃ
দরখাস্ত দাখিল করতে হবে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কার্যালয়ের মহাফেজ খানা শাখা (রেকর্ড রুম)।

(গ) অকৃষি খাস জমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
১।সরকারি অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য ৫/- টাকার কোর্ট ফি দিয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন। আবেদন পত্রের সহিত প্রার্থীত জমি যে উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য বন্দোবস্ত চাওয়া হয়েছে তা ব্যতিরেকে অন্য কোন উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হবে না মর্মে অঙ্গিকারনামা (এফিডেভিট) দাখিল করতে হবে।
২। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আবেদন পত্রখানা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে উপজেলা ভূমি অফিসে প্রেরণ করা হয়।
৩।সরেজমিনে পরিমাপ,তদন্ত ও নীতিমালায় উল্লেখিত শর্ত সাপেক্ষে প্রার্থীত ভূমি বন্দোবস্ত প্রদানের যোগ্য হলে কেস নথি সৃজন পূর্বক জমির মূল্য নির্ধারণ করে স্কেস ম্যাপ,রেন্ট রোল ইত্যাদির সমন্বয়েএকটি প্রস্তাব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করার পর তা যথাযথ কি-না পরীক্ষান্তে প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়।

(ঘ) কৃষি খাসজমি স্থায়ী বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ
যে কোন ভূমিহীন পরিবার সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট নির্ধারিত ফরমে দরখাস্ত দাখিল করতে পারবেন।
আবেদনপত্রের সহিত যা জমা দিতে হবেঃ
১। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার/চেয়ারম্যানকর্তৃক সত্যায়িত ০২ কপি ফটো।
২। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট।

ইউনিয়ন খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটি প্রাপ্ত আবেদনপত্রসমূহ যাচাই-বাছাইপূর্বক প্রকৃত ভূমিহীন পরিবারের তালিকা প্রস্তুত ও জমি বরাদ্দের পরিমাণ নির্ধারণ করবেন। এর ২১ দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার(ভূমি) বন্দোবস্ত কেস রেকর্ড সৃজন পূর্বক উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট প্রেরণ করবেন।উক্ত কেস রেকর্ড পরবর্তী ২১ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হবে।
জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে অনুমোদিত প্রস্তাব ফেরৎ পাওয়ার পরে ১/-টাকা সেলামীর বিনিময়ে বন্দোবস্ত প্রাপকের অনুকুলে কবুলিয়ত সম্পাদন, খতিয়ান খোলা ও বন্দোবস্তকৃত জমির দখল বুঝিয়ে দেয়া হবে।

ছবি নাম মোবাইল
মোঃ রফিকুল ইসলাম 0

ছবি নাম মোবাইল
মোঃ রফিকুল ইসলাম 0

ছবি নাম মোবাইল
মোঃ হানিফ

0

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

০১ নং চরামদ্দি , বাকেরগঞ্জ,

বরিশাল।

বিশেষ দ্র:ব্য: রিক্সা, ইজিবাইক, অটো ইত্যাদি পরিবহন যোগে যাওয়া যায়।